লোককথা - বোকা তাঁতি

লোককথা -বোকা তাঁতি

সু ব্র ত কু মা র  মা ন্না    


.

দুধটা গরম বলে ফুঁ দিতে লাগল

বােকা তাঁতির বােকামির জন্য ছােট বড় সকলেই তাকে বোকা তাঁতি বলে খ্যাপাত। একদিন রাস্তা দিয়ে যাবার সময় কতকগুলি রাখাল ছেলে তাকে বােকা তাঁতি বলে খ্যাপাতে শুরু করলে সে তা শুনে বেজায় চটে যায়। বাড়িতে এসে নিজেকে বুদ্ধিমান করবার জন্য ভাবতে থাকে।

গ্রামেরই এক ভদ্রলােক হামিদ, তার প্রখর বুদ্ধির জন্য সে খুবই গণ্যমান্য ছিল। বােকা তাঁতি বুদ্ধিমান হবার জন্য তার কাছে গেল। বােকাতাঁতি দেখল হামিদ দাওয়ার সামনে বসে কি একটা করছে। বােকাতাঁতি সামনে এসে জানতে চাইল, সে কি করছে ?

হামিদ উত্তর দিল, সে আগুন জ্বালাতে চেষ্টা করছে। কিন্তু কাঠগুলি ভিজে থাকার কারণে উনুনটি জ্বলছে না।

বােকা তাঁতি জানতে চাইল, সে আগুনের মুখে ফুঁ দিচ্ছে কেন?

হামিদ জানাল সে  দিয়ে আগুনকে গরম করছে যাতে উনুন জ্বলে। হামিদের উনুন ধরানাে শেষ হলে সে দাওয়ায় এসে বসে। বউকে ডেকে বলে, বাড়িতে প্রতিবেশী এসেছে তাকে কিছু খেতে দাও।

বউ আদেশ মত একবাটি গরম দুধ বােকা তাঁতিকে দিল। তার সাথে হামিদকেও আর একটা বাটিতে দুধ দিল । হামিদ নিজের বাটির দুধটা গরম বলে ফুঁ দিতে লাগল। বােকা তাঁতি বলে, দুধটা তাে গরমই আছে তাহলে আবার ফুঁ দিয়ে গরম করছেন? সে কথা শুনে হামিদ প্রথমে হেসে ফেলে। বলে, দুধটা আমি ঠাণ্ডা করার জন্য ফুঁ দিচ্ছি।

বােকা তাঁতির মাথায় সে কথা ঢুকল না। সে বলেই ফেলল, - "এ আবার কেমন কথা। একবার বলছেন ফুঁ দিচ্ছি গরম করবার জন্য, আবার বলছেন ফুঁ দিচ্ছি ঠাণ্ডা করবার জন্য - এই আপনার বুদ্ধির লক্ষণ ?" তার থেকে তাে দেখছি আমি অনেক বুদ্ধিমান। বলে সে তাড়াতাড়ি বাড়ি ফিরে গেল।

Comments

Post a Comment

Trending Posts

মেদিনীপুরের কৃষিবিজ্ঞানী ড. রামচন্দ্র মণ্ডল স্যারের বর্ণময় জীবনের উত্থান-পতনের রোমহর্ষক কাহিনী /উপপর্ব — ০১ /পূর্ণচন্দ্র ভূঞ্যা

ছোটোবেলা বিশেষ সংখ্যা ১১১

‘পথের পাঁচালী’ এবং সত্যজিৎ রায় : একটি আলোচনা/কোয়েলিয়া বিশ্বাস

ড. সুকুমার মাইতি (গবেষক, শিক্ষক, প্রত্ন সংগ্রাহক, খড়গপুর)/ভাস্করব্রত পতি

প্রাচীন বাংলার জনপদ /প্রসূন কাঞ্জিলাল

শিবচতুর্দশী /ভাস্করব্রত পতি

রাষ্ট্রীয় মূল্যায়ন ও স্বীকৃতি পরিষদ (NAAC) এর মূল্যায়ন ও স্বীকৃতি: উদ্দেশ্য ও প্রস্তুতি - কলেজ ভিত্তিক অভিজ্ঞতা /সজল কুমার মাইতি

জঙ্গলমহলের 'জান কহনি' বা ধাঁধা /সূর্যকান্ত মাহাতো