আষাঢ়ে গল্পের আলধরে - চার /তন্দ্রা ভট্টাচার্য্য

আষাঢ়ে গল্পের আলধরে - চার

তন্দ্রা ভট্টাচার্য্য 

চল্লিশে চালশে 
                   
চল্লিশে নারী পারাপার যেন এক ন‍্যাতানো বিস্কুটিয় উপাখ‍্যান। আমি যেন কেমন একটি ছায়া হয়ে গেছি।সবাই এখানে এসে জুড়োবে।মাসীমা ,কাকীমা নামক কাকতালীয় জোন।বুড়োরা ফস্টি নস্টি করতে এলেই সেসব ষষ্ঠীপুজোতে আমার ভালোই এলেম আছে। যদি জ‍্যৈষ্ঠ মাস হয় তেষ্টা পেলেই পেতে পারে।শরীর না হয় বড়াই বুড়ীর খুড়তুতো বোন, মন তো রাধার চেয়েও আরও যাদা।কিন্তু লজ্জা ভয় হয় চল্লিশ পেরিয়ে গেছে কিনা! রাস্তা ঘাটে আই কনট‍্যাক্ট হলে ...কত বসন্ত যেন আছড়ে পড়লো! লাথি মারি ঐ বসন্ত বেটাকে।

অকারণে আমার উঠোনে দাপিয়ে মরে!সেই সক্কালে ...মাজার ব‍্যথায় ঝাঁটা হাতে ঝুঁকি নিয়ে বসন্ত বিদায় করি! বুঝলেন না তো? আরে শিমুল ফুল পড়ে থাকে উঠোন জুড়ে ...পিছলে পড়ে মরবো যে!বলি ও কত্তা দাও দিখিনি ভলিনি মলমটা লাগিয়ে বেশ করে।কিন্তু বিশ্বাস করুন ঐ হাত কেমন ম‍্যাদা মারা হয়েগেছে।তবে একখ‍্যান কথা বলি বাইরে বেরুলে বেশ মাঞ্জা দিয়েই যাই...ভয় করে জানেন ....আমার বয়স কি ওরা ধরতে পারে? আজ কজন তিরছি নজরে দেখে এসব হিসেব রাখি।বুঝলেন। মুখে যতই রাগ দেখাইনা কেন মনে মনে হাওয়া দেয় ...পাক খেয়ে যায়। আজকাল ষাট পেরনো পুরুষরা বেশ লুকিয়ে পরকীয়া করে।বাজার বেশ ভালো ,সাপ্লাই ভালো.... কচি কচি পটেও বেশ।চল্লিশ পার হওয়া নারীদের এক্বেবারে চালশে স্ক্রীন এ সিনেমা ...যাকে বলে ফেড রঙহীন।আর একখান ভয় আছে ...মেনোপেজ হলে কি হবে?আর যাদের হয়েছে তারা কেমন আছে? এ সব কথা কেউ খুলে বলে না।বললেই তো তসলিমা নাসরিন হয়ে যাবে যে! ভারতে থাকো যখন মাছ ধর ...চুল ভিজিয়ো না বেণী ভিজিও না।আচ্ছা একটা কথা এই চল্লিশ বা আশি যায় হোক আপনার বয়স...সারাজীবনে কি পেলেন?ভেবেছেন কখনও?পেয়েছেন অনেক কিছু স্কুল ,কলেজ ,বন্ধু, শত্রু, প্রাইজ,বর,সন্তান, প্রতিষ্ঠা এসব একদম সাইড করে চলে যান আয়নার সামনে ..এবার নিজেই বুঝবেন। ভুঁড়ি সর্বস্ব নারী।যে কিনা কারোর গৃহে প্রবেশের আগে মধ‍্যপ্রদেশ বলবে may I come in? দেখুন পুরুষের বয়স হয় না ওদের যন্ত্রপাতি মোটামুটি ঠিক ঠাক থাকে।

তাই তো বুড়ির বুড়ো নিয়ে খুব ভয়!মালটা কে কায়দা করে ধম্মে কম্মে ঠেলে দিন...তবে নজর রাখুন কম বয়সীরাও কিন্তু সেখানে যায়। আপনি ও সঙ্গে যান।হালকা নেশা করতে পারেন ...বেশি বাড়াবাড়ি করবেন না।ফেসবুক ,WhatsApp সব চেক করুন...এ সব মহান কাজ।বুঝলেন দিদি কাজের মধ্যে থাকুন মন ভালো থাকবে।ছ‍্যাবলার মতন কোন হাসির ব‍্যায়াম আছে যান সেখানে দাঁত ক‍্যালাতে! চল্লিশ পার করেছন মহিলাকে কে পোঁছে?মনে পড়েছে একটা কথা এই বয়স থেকে একটা ক্ষমতায় থাকা পাটির লেজ ধরতে পারেন ......কিছু হলেও হতে পারে।হতাশা আসে ,আসবেই ফালতু বয়সের জন‍্যই মরতেও ইচ্ছা হয়না বিশ্বাস করুন আবার বাঁচতেও না।চলুন বেড়াতে যাই ...সে ও বুড়িদের দলে মিশতে হবে ! ছোটরা ইয়ং মেয়ে বউরা আপনার গল্প শুনবেনা।পা ব‍্যথা, ঘাড় ব‍্যথা রামবাবা, শ‍্যাম বাবাএ সব রামায়ণ শুনতে হবেনা। রসের কথা কইতে বড্ড ইচ্ছে হয়। সেই গান খানা নতুন করে কারোর দিকে তাকিয়ে বড্ড গাইতে মন করে "তুমি কি এখন দেখিছো স্বপন আমারে আমারে আমারে" অথবা "এমনি বরষা ছিল সেদিন শিয়রে প্রদীপ, ছিল মলিন "। কোনো দিন ও দেখা হয় না যার মুখ বার বার দেখতে ইচ্ছা হয়।একটি দিন খুব একলা তার সঙ্গে ভ্রমণ করতে ইচ্ছে হয় যার কথা কেউ কখনও জানেনা এমনকি সেও না! কবে হবে এমন দিন? জীবনে প্রেমকে কই মাছের মত জিইয়ে রাখতে পারেন ,তবে হ‍্যাঁ বিউটি পার্লার এ একটু পয়সা দিন কিপটেমি করে কি হবে? দেখুন এবার নবীন হতে পারেন কিনা?হারমোনিয়ামের ধুলো ঝেড়ে একটু রেয়াজ করুন গলা ঠিক লেগে যাবে।বুড়ো হিংসা করতে পারে অত জ্ঞান দিতে পারবো না ম‍্যানেজ করুন।

 অহেতুক ঝগড়া অশান্তি না করে দুজন দুজনকে একটু জায়গা ছাড়ুন।না হলে দম আটকে মরবেন য়ে।শুকনো তেজপাতার বিবাহিত জীবনে গন্ধ থাকলেও রস তেমন নেই।মনে রাখবেন" শুধু একদিন ভালোবাসা মৃত্যু যে তারপর,চাই না বাঁচতে আমি প্রেমহীন হাজার বছর"।

পেজে লাইক দিন👇

Comments

Trending Posts

‘পথের পাঁচালী’ এবং সত্যজিৎ রায় : একটি আলোচনা/কোয়েলিয়া বিশ্বাস

সনাতন দাস (চিত্রশিল্পী, তমলুক) /ভাস্করব্রত পতি

সর্বকালের প্রবাদপ্রতিম কবিসত্তা শক্তি চট্টোপাধ্যায় /প্রসূন কাঞ্জিলাল

ছোটোবেলা বিশেষ সংখ্যা ১১০

শঙ্কুর ‘মিরাকিউরল’ বড়িই কি তবে করোনার ওষুধ!/মৌসুমী ঘোষ

বাংলা ব্যাকরণ ও বিতর্কপর্ব ১৮/অসীম ভুঁইয়া

প্রাচীন বাংলার জনপদ /প্রসূন কাঞ্জিলাল

রাষ্ট্রীয় মূল্যায়ন ও স্বীকৃতি পরিষদ (NAAC) এর মূল্যায়ন ও স্বীকৃতি: উদ্দেশ্য ও প্রস্তুতি - কলেজ ভিত্তিক অভিজ্ঞতা /সজল কুমার মাইতি