২৩ মে ২০২১

Today is the 23 May, 2021
আজকের দিন 
বাংলায়--৮ জ্যৈষ্ঠ রবিবার ১৪২৮

ভারতের বিশিষ্ট চিকিৎসক, হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ মণি কুমার ছেত্রী ১৯২০ সালে আজকের দিনে জন্মেছিলেন। ইনি যেমন অভিজ্ঞ চিকিৎসক তেমনই দক্ষ স্বাস্থ্য প্রশাসক। আবার একদিকে যেমন রোগীদের উদ্ধারকর্তা অন্যদিকে তেমনই ছাত্রদরদী প্রশিক্ষকও। জন্মদিনে শুভেচ্ছা ও শুভকামনা।

  সংস্কৃত ভাষার অধ্যাপক ও সংগীতশিল্পী অধ্যাপক ড. গোবিন্দগোপাল মুখোপাধ্যায় ১৯১৮ সালে আজকের দিনে জন্মেছিলেন। মহামহোপাধ্যায় উপাধি ও রাষ্ট্রপতি সম্মানে ভূষিত এই সংস্কৃত পণ্ডিত কৃতি অধ্যাপক-জীবনের পাশাপাশি ছিলেন খ্যাতিমান সংগীতশিল্পী। সঙ্গীতে তিনি তালিম নিয়েছিলেন হরেন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায় ও দিলীপকুমার রায়ের কাছে।তিনি সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন দেবকী বসু পরিচালিত 'ভগবান শ্রীকৃষ্ণচৈতন্য' ও 'মাথুর' ছায়াছবিতে। 'সাগরসঙ্গমে' ও 'সাত পাকে বাঁধা' ছায়াছবিতে নেপথ্যে কণ্ঠ দিয়েছেন।

  রুশ গ্র্যান্ডমাস্টার দাবাড়ু ও প্রাক্তন বিশ্ব দাবা চ্যাম্পিয়ন আনাতোলি কারপভ ১৯৫১ সালে আজকের দিনে জন্মেছিলেন। তিনি ১৯৭৫ সাল থেকে দাবার বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ছিলেন। প্রায় দশ বছর ধরে দাবার রাজ্য শাসন করার পরে ১৯৮৫ সালে গ্যারি কাসপারভ এর কাছে হারের মাধ্যমে তিনি বিশ্বচ্যাম্পিয়নের খেতাব হারান। জন্মদিনে শুভেচ্ছা ও শুভকামনা।
  
 স্বনামধন্য নরওয়েজীয় নাট্যকার হেনরিক যোহান ইবসেন ১৯০৬ সালেআজকের দিনে প্রয়াত হয়েছিলেন। তিনি আধুনিক বাস্তবতাবাদী নাটকের সূত্রপাত করেছেন। তাই তাঁকে  আধনিক নাটকের জনক বলা হয়। নরওয়ের সর্বকালের শ্রেষ্ঠ লেখক এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নাট্যকার হিসেবে আসীন। তাঁর কয়েকটি উল্লেখযোগ্য রচনাবলি পিয়ার গিন্ট, আ ডলস হাউজ (১৮৭৯), গোস্টস (১৮৮১), দ্য ওয়াইল্ড ডাক, হেড্ডা গ্যাবলার ইত্যাদি।

  সিন্ধু সভ্যতার আবিষ্কারক রাখালদাস বন্দ্যোপাধ্যায় ১৯৩০ সালে আজকের দিনে প্রয়াত হয়েছিলেন। মাত্র পঁয়তাল্লিশ বছরের জীবনে মহেঞ্জাদারো-সহ নানা প্রত্নতাত্ত্বিক আবিষ্কারে অংশগ্রহণ করা তো আছেই সেই সঙ্গে রয়েছে প্রচুর গবেষণামূলক বইপত্র, ঐতিহাসিক, সামাজিক উপন্যাস। তাঁর দুখণ্ডে ‘বাঙ্গালার ইতিহাস’; ‘পাষাণের কথা’, ‘শশাঙ্ক’, ‘ধর্মপাল’ করুণা, ময়ূখ, অসীম, লুৎফ-উল্লা, ধ্রুব, পাষাণের কথা, অনুক্রম, হেমকণা  ইত্যাদি সুখপাঠ্য, তথ্যানুগ ঐতিহাসিক উপন্যাসগুলি আজও পড়তে ভাল লাগে।

  স্বদেশী ও খিলাফত আন্দোলনে যুক্ত রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব প্রভাস রায় ১৯৯১ সালে আজকের দিনে প্রয়াত হয়েছিলেন। ১৯২৯ খ্রিস্টাব্দে মাস্টারদা'র সঙ্গে তাঁর পরিচয় হয়। ১৯৩০ খ্রিস্টাব্দে চট্টগ্রাম অস্ত্রাগার লুণ্ঠনের পরই তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হলে তিনি আত্মগোপন করে থাকলেও ১৯৩২ খ্রিস্টাব্দে ধরা পড়েন। কারাবাসের সময় ভবানী সেন, ধরনীধর গোস্বামী, আবদুল রেজ্জাক খাঁ প্রমুখের কাছে মার্কসবাদের শিক্ষা নেন।

 মনীষী উবাচ :
যে ব্যক্তি ক্ষমতাপ্রয়োগের অধিকার পায় নাই সে আপনার শক্তির স্বাদ জানে না; সে নিজেই নিজের পরম শত্রু। সে জানে যে আমি অক্ষম, এবং এইরূপ জানাই তাহার দারুণ দুর্বলতার কারণ।(ররবীন্দ্রনাথ ঠাকুর)
-----------------------------
সংকলক- রুম্পা প্রতিহার 
-----------------------------
জ্বলদর্চি পেজে লাইক দিন👇

Comments

Trending Posts

‘পথের পাঁচালী’ এবং সত্যজিৎ রায় : একটি আলোচনা/কোয়েলিয়া বিশ্বাস

সনাতন দাস (চিত্রশিল্পী, তমলুক) /ভাস্করব্রত পতি

ছোটোবেলা বিশেষ সংখ্যা ১১০

সর্বকালের প্রবাদপ্রতিম কবিসত্তা শক্তি চট্টোপাধ্যায় /প্রসূন কাঞ্জিলাল

বাংলা ব্যাকরণ ও বিতর্কপর্ব ১৮/অসীম ভুঁইয়া

শঙ্কুর ‘মিরাকিউরল’ বড়িই কি তবে করোনার ওষুধ!/মৌসুমী ঘোষ

প্রাচীন বাংলার জনপদ /প্রসূন কাঞ্জিলাল

রাষ্ট্রীয় মূল্যায়ন ও স্বীকৃতি পরিষদ (NAAC) এর মূল্যায়ন ও স্বীকৃতি: উদ্দেশ্য ও প্রস্তুতি - কলেজ ভিত্তিক অভিজ্ঞতা /সজল কুমার মাইতি