১০ মে ২০২১

Today is the 10th May,2021
আজকের দিন 
বাংলায়--২৬ বৈশাখ সোমবার ১৪২৮

ভারতের প্রথিতযশা উর্দুভাষী কবি - সাহিত্যিক কাইফি আজমি ২০০২ সালে  আজকের দিনে প্রয়াত হয়েছিলেন। গজল দিয়ে কাব্যচর্চা শুরু করেন। ধীরে ধীরে সামাজিক সচেতনতামূলক কাব্য রচনা করতে থাকেন। তাঁর গ্রন্থের মধ্যে আখির-ই-সাব, শারমায়া, আওয়ারা সাজদে, কৈফিয়াত, নঈ গুলিস্তাঁ প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য। ১৯৫২ সালে গীতিকার হিসেবে মুম্বাই চলচ্চিত্রে কাজ আরম্ভ করেন। ১৯৭৫ খ্রিষ্টাব্দে আওয়ারা সাজদে কাব্যগ্রন্থের জন্য সাহিত্য একাডেমি পুরস্কারে সম্মানিত হয়েছেন।

ব্রতচারী আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা গুরুসদয় দত্ত ১৮৮২ সালে আজকের দিনে জন্মেছিলেন। সরকারি এই  কর্মচারী লোক সাহিত্য গবেষক এবং লেখকও ছিলেন। ব্রতচারীদের মধ্যে তিনি প্রবর্তক জী নামে খ্যাত ছিলেন। বিভিন্ন সময় অসংখ্য গ্রন্থ রচনা ও প্রকাশ করেছিলেন, যেগুলো বর্তমানে দুর্লভ।

  বাঙালি সঙ্গীতশিল্পী শিল্পী পঙ্কজ কুমার মল্লিক ১৯০৫ সালে আজকের দিনে জন্মেছিলেন। তিনি বাংলা ও হিন্দি চলচ্চিত্রের প্রথম যুগের এক অগ্রণী সঙ্গীত পরিচালক ও নেপথ্য কণ্ঠশিল্পী ছিলেন। রবীন্দ্রসঙ্গীতেও তার সবিশেষ অবদান ছিল। ১৯৩১ সালে তিনিই মহিষাসুরমর্দিনীর অনুষ্ঠানটির সুর দেন।১৯৭২ সালে ভারতীয় চলচ্চিত্রে তাঁর অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ভারত সরকার তাঁকে দেশের সর্বোচ্চ চলচ্চিত্র সম্মাননা দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কারে সম্মানিত করেন।
ভারতীয় লেখিকা নয়নতারা সায়গল  ১৯২৭ সালে আজকের দিনে জন্মেছিলেন। ইনি জওহরলাল নেহরুর বোন বিজয়লক্ষ্মী পণ্ডিত-এর অন্যতম সন্তান। ১৯৮৬ খ্রিষ্টাব্দে তাঁর ইংরেজি ভাষায় লেখা উপন্যাস রিচ লাইক আস গ্রন্থের জন্য সাহিত্য আকাদেমি পুরস্কারে সম্মানিত হয়েছেন। জন্মদিনে শুভেচ্ছা ও শুভকামনা। 

  অগ্নিযুগের বিপ্লবী অবিনাশচন্দ্র ভট্টাচার্য ১৯৬২ সালে আজকের দিনে প্রয়াত হয়েছিলেন। কলকাতার ৩২ নং মুরারিপুকুরের বাগানবাড়িতে একটি বোমা তৈরির স্থান ছিলো। সেই মুরারিপুকুরের ঘটনায় আলিপুর বোমা মামলার আসামি হিসেবে তাকে গ্রেপ্তার করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়। পরে দণ্ডাদেশ হ্রাস পাওয়ায় ১৯১৫ সনের মে মাসে মুক্তি পান। ১৯২০ সালে দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাশের স্বরাজ্য দলে যোগ দেন। তাঁর রচিত গ্রন্থ হচ্ছে রণসজ্জায় জার্মানি, স্বরাজসাধনা, মুক্তিসাধনা, জার্মানি প্রবাসীপত্র, ইউরোপে ভারতীয় বিপ্লবের সাধনা প্রভৃতি।

  আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন  বাঙালি রসায়নবিদ জ্ঞানেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় ১৯৮৩ সালে আজকের দিনে প্রয়াত হয়েছিলেন। মৃত্তিকার কোলয়েড অধ্যয়নের মাধ্যমে মাটির অনেক বৈশিষ্ট্য এবং সমস্যা সম্পর্কিত বিষয়ে আলোকপাত করতে সমর্থ হয়েছিলেন। মৃত্তিকা বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে অগ্রণী অবদানের পাশাপাশি তিনি দেশে কৃষি গবেষণা ও শিক্ষার উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন।

  লেখক ও শিক্ষাবিদ প্রমথনাথ বিশী ১৯৮৫ সালে আজকের দিনে প্রয়াত হয়েছিলেন। শান্তিনিকেতনের ছাত্র থাকা অবস্থায় তিনি প্রথম উপন্যাস লিখেন দেশের শত্রু। এরপর পদ্মা, জোড়াদিঘীর চৌধুরী পরিবার, কেশবতী, নীলমণির স্বর্গ, সিন্ধুদেশের প্রহরী, লালকেল্লা উপন্যাসগুলো রচনা করেন। তবে তাঁর শ্রেষ্ঠ উপন্যাস কেরী সাহেবের মুন্সি। এই উপন্যাসের জন্য তিনি ১৯৬০ সালে রবীন্দ্র পুরস্কারে সম্মানিত হয়েছেন।

  বাংলাদেশের বামপন্থী রাজনীতিবিদ-বিপ্লবী রবি নিয়োগী  ২০০২ সালে প্রয়াত হয়েছিলেন। তিনি  যুগান্তর দলের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। চল্লিশের দশকে বৃহত্তর ময়মনসিংহে কৃষক আন্দোলন ও কমিউনিস্ট পার্টি গড়ে তোলার কাজেও আত্মনিয়োগ করেছিলেন।

  প্রখ্যাত জাপানি চিত্রশিল্পী কাৎসুশিকা হোকুসাই(Katsushika Hokusai)১৮৪৯ সালে আজকের দিনে প্রয়াত হয়েছিলেন। তাঁর সময়ে তিনি জাপানে চীনা চিত্রশিল্পের নেতৃস্থানীয় পণ্ডিত ছিলেন।  এছাড়া তিনি জাপানে উকিয়োয়ে চিত্র ঘরাণার (ভাসমান বিশ্বের ছবি) অগ্রদূত ছিলেন। এ ধরনের ছবিগুলোর বিষয়বস্তু ছিল প্রাকৃতিক দৃশ্য ও অভিনেতাদের এক-কাগজের প্রিন্ট, হাতে করা ছবি এবং সুরিমোনো (ছাপা বস্তু)। জীবনের শেষের দিকে তিনি প্রথাগত সামুরাই ও চীনা শিল্পের দিকে আকৃষ্ট হয়ে পড়েছিলেন।

মনীষী উবাচ :
মানুষ নিয়ম মানে ভয়ে; এই ভয়টাতে প্রমাণ করে তার আত্মিক দুর্বলতা। ভয় দ্বারা চালিত সমাজে বা সাম্রাজ্যে মানুষকে পশুর তুল্য অপমানিত করে।(রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর)
-----------------------------
সংকলক- রুম্পা প্রতিহার 
-----------------------------
জ্বলদর্চি পেজে লাইক দিন👇
আরও পড়ুন

Comments

Trending Posts

‘পথের পাঁচালী’ এবং সত্যজিৎ রায় : একটি আলোচনা/কোয়েলিয়া বিশ্বাস

সনাতন দাস (চিত্রশিল্পী, তমলুক) /ভাস্করব্রত পতি

সর্বকালের প্রবাদপ্রতিম কবিসত্তা শক্তি চট্টোপাধ্যায় /প্রসূন কাঞ্জিলাল

ছোটোবেলা বিশেষ সংখ্যা ১১০

শঙ্কুর ‘মিরাকিউরল’ বড়িই কি তবে করোনার ওষুধ!/মৌসুমী ঘোষ

বাংলা ব্যাকরণ ও বিতর্কপর্ব ১৮/অসীম ভুঁইয়া

প্রাচীন বাংলার জনপদ /প্রসূন কাঞ্জিলাল

রাষ্ট্রীয় মূল্যায়ন ও স্বীকৃতি পরিষদ (NAAC) এর মূল্যায়ন ও স্বীকৃতি: উদ্দেশ্য ও প্রস্তুতি - কলেজ ভিত্তিক অভিজ্ঞতা /সজল কুমার মাইতি