সৌতিক হাতী


সৌ তি ক  হা তী


ট্রাফিক জ্যামে

ট্রাফিক জ্যামে আটকে গেলেই
ডিওডোরেন্ট মুহূর্তরা ঘিরে ধরে
আমি সিগন্যালে দেখি সিঁদুরে মেঘ
অগনিত হেলমেটে ঢাকা গৃহপালিত অসুখ
গাড়ির কাচে টোকা দেওয়া পথশিশু
আমায় একটা বিছিন্ন দ্বীপে নিয়ে যায়
জাহাজডুবির পর মৃতপ্রায় লেনিন সেখানে শুয়ে

আমি ঘামের সাথে পান্তা ভাতের সম্পর্ক বুঝে নিয়ে
ডিওডোরেন্ট ছড়িয়ে দিই ঘেয়ো কুকুরের গায়ে
আবহমান ঘামগন্ধ নিয়ে ছুটে চলে পথ
বলিরেখা ফুটে ওঠে ট্রাফিক সিগন্যালে

বেশ ছিল  

অস্থির বিছানা I আধময়লা বেডশীট I খোলা ডায়েরী I ভাবনার এনট্রপি I 
বেশ ছিল ৷ তালগাছ ৷ বেশ ছিল । খামোকাই শাখা প্রশাখা I 
খামোকাই ৷ একসাথে ম্যারাথন | উচ্ছন্ন বিকেল ৷ সন্ধের অ্যালকোলাহল । 
রেস্তোরাঁ ৷ কেবিন ৷ পার্ক I অন্ধকার গলি । হেডোনিস্ট মেসেঞ্জার I চুলবুলি চড়ুই I
উশখুশ আদিম রিপু I বোধ বিক্রির ট্রেলার I চৌরাস্তার মোড়ে নেক্রোম্যানিয়াক I
তেলচিটে জিন্স I ক্ষয়াটে স্যান্ডাল I প্রেম I তেলেভাজা I ঝিমিয়ে আসা পকেট I ক্রমশ। 
বেশ ছিল I তালগাছ I বেশ ছিল I খামোকাই ...


নাস্তিক সিরিজ

১.
 ভগবানের  
কান মলে দেব,
হ্যাঁ দেবই...

যতদিন 
শোষকের থাবায়
ঝরবে রক্ত

ভক্ত হব না
কোনোভাবেই

২.
এই যে-পাথরও জাগ্রত
বলে তুমি বিশ্বাস করো!
কেন তবে  ভুলে যাও?
যে গাছের ছায়ায় আছে সেটি
 তারও প্রাণ থাকতে পারে...

নিত্যদিন হিস্টিরিয়াবশত
ঢেলে দিচ্ছ দুধ
ঢেলে দিচ্ছ জল
কখনো বা তাজা রক্তের অর্ঘ্য!
অথচ শুকিয়ে মরছে
ঘরের সামনেই চারাগাছ...

এই যে-পাথরও জাগ্রত
বলে তুমি বিশ্বাস করো!
চিনতেই পারছ না
বৃক্ষ-দেবতাকে...


স্বদেশ!

কঙ্কালসার লোকগুলো হেঁটে যাচ্ছে
জাতীয় পতাকা হাতে...
মুহুর্মুহু ধ্বনিত হচ্ছে দেশবন্দনা৷
মন্ত্রীজী স্বাধীনতা দিবস
উদযাপনে তলব করেছেন এদের!
তিন দিন ভাত পায়নি যে ফুটপাত
সেও আজ কাগজের তেরঙ্গায় ঝলমলে!
কঙ্কালসার লোকগুলো হেঁটে যাচ্ছে
উদযাপন শেষে টিফিন প্যাকেটটা পাবে বলে...
অনাহারের ধারাপাতে নামতাগুলো
ক্রমশ লম্বা হচ্ছে,
আর তোমরা তার ধারাভাষ্য দিতে
বসেছো বাতানুকূল কাচঘরে!

দেবলীনা

নিসঙ্গ দ্বীপে পরিত্যক্ত গুহা
দেবলীনা, তুমি প্রাগৈতিহাসিক ঈভ্,
কামনা আসক্ত উন্মুখ বালিয়াড়ি
নীল সমাবেশে টার্টল অলিভ৷

সমুদ্রস্রোতে আবেগের সংশ্লেষ
মত্ত ঢেউয়ের অনাবিল ফোর প্লে,
দেবলীনা, তুমি কোনারক মৈথুন
শীৎকারে ধেয়ে সুনামিই আসছে 

গুহার দেয়ালে বাদুড় ঝোলা প্রেম
হয়ত এসব স্বপ্নের কলকাঠি,
দেবলীনা চলো,  মুহুর্তে বাঁচি রোজ
জলতরঙ্গে মন হারানোর চিঠি।

নিসঙ্গ দ্বীপে নিওলিথিক গুহা
দেবলীনা, চেনো অাগুনের শিলালিপি,
পাইরেটস যত জাহাজ আসার আগে
চলো বুকে ঠোঁটে বন্য সোহাগ মাপি।

------

Comments

Trending Posts

ড. সুকুমার মাইতি (গবেষক, শিক্ষক, প্রত্ন সংগ্রাহক, খড়গপুর)/ভাস্করব্রত পতি

‘পথের পাঁচালী’ এবং সত্যজিৎ রায় : একটি আলোচনা/কোয়েলিয়া বিশ্বাস

রাষ্ট্রীয় মূল্যায়ন ও স্বীকৃতি পরিষদ (NAAC) এর মূল্যায়ন ও স্বীকৃতি: উদ্দেশ্য ও প্রস্তুতি - কলেজ ভিত্তিক অভিজ্ঞতা /সজল কুমার মাইতি

প্রাচীন বাংলার জনপদ /প্রসূন কাঞ্জিলাল

খাঁদারাণী, তালবেড়িয়া, মুকুটমণিপুর ড্যামের নির্জনতা ও 'পোড়া' পাহাড়ের গা ছমছমে গুহা /সূর্যকান্ত মাহাতো

বাংলা ব্যাকরণ ও বিতর্কপর্ব ১৮/অসীম ভুঁইয়া

ছোটোবেলা বিশেষ সংখ্যা ১১০

সুন্দরবনের উপর গুচ্ছ কবিতা/ওয়াহিদা খাতুন