ভঙ্গবাসা/ভাস্করব্রত পতি

বাংলা প্যারোডি কবিতা, পর্ব -- ২৯
ভঙ্গবাসা 

ভাস্করব্রত পতি

হে বঙ্গ সংসারে তব অসংখ্য 'রতন';
তবুও 'গবেট' আমি, হেলাফেলা করি,
শিলপের খোঁজে করি বিদেশ ভ্রমন
বিদেশী ডিগরি পেতে গোপন আচরি। 
সংগ্রামে মগ্ন হ'তে সংসার পরিহারি! 
অনশনে চকোলেটে মজে রাখি মন:
অজ্ঞানে অজান্তে 'ডহরবাবু'রে বরি,-
ভরিনু শৈবালে আজি বঙ্গের কানন! 
স্বপ্নে দেখিনু আমি লণ্ডন হ'ল পরে,--
ওরে 'বাচ্চা', আয় কাছে হৃদয়ের রাজি,
সোনা চাঁদি দেবো নাকি প্রাণ খুলে আজি?
'শিক্ষা স্বাস্থ্য কর্মক্ষেত্র' দেবো ঘরে ঘরে! 
রাখিলাম প্রতিশ্রুতি, মানিলাম কালে 
মোর রাজ্যে সুখ শান্তি, স্বপ্নমাখা জালে।। 

🍂

বঙ্গভাষা

মাইকেল মধুসূদন দত্ত

হে বঙ্গ, ভাণ্ডারে তব বিবিধ রতন;
তা সবে, অবোধ আমি! অবহেলা করি,
পর ধন লোভে মত্ত, করিনু ভ্রমণ
পরদেশে, ভিক্ষাবৃত্তি কুক্ষণে আচরি।
কাটাইনু বহু দিন সুখ পরিহারি।
অনিদ্রায়, নিরাহারে সঁপি কায়, মনঃ
মজিনু বিফল তপে অবরেণ্যে বরি; -
কেলিনু শৈবালে; ভুলি কমল কানন!
স্বপ্নে তব কুললক্ষ্মী কয়ে দিলা পরে 
"ওরে বাছা, মাতৃকোষে রতনের রাজি,
এ ভিখারী দশা তবে কেন তোর আজি?
যা ফিরি, অজ্ঞান তুই, যা রে ফিরি ঘরে!"
পালিলাম আজ্ঞা সুখে; পাইলাম কালে
মাতৃ ভাষা রূপে খনি, পূর্ণ মণিজালে।


Post a Comment

1 Comments

  1. অপূর্ব! কিন্তু, এটি অত্যন্ত সামান্য কথা। কবিতাটি অপূর্বর অনেক বেশি।

    ReplyDelete